কেন্দ্রীয় প্রশাসনিক ট্রাইব্যুনাল (সিএটি) এর জম্মু ও কাশ্মীর অঞ্চল সম্পর্কিত মামলা পরিচালনার এখতিয়ার থাকবে। জম্মু ও কাশ্মীরের কেন্দ্রীয় পরিষেবা সম্পর্কিত বিষয়গুলির বিষয়ে এ পর্যন্ত বিড়ালদের এখতিয়ার ছিল।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে (পিএমও) প্রতিমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং সম্প্রতি ঘোষণা করেছেন যে জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে কেন্দ্রীয় প্রশাসনিক ট্রাইব্যুনাল (সিএটি) আওতাভুক্ত করা হবে। জিতেন্দ্র সিং বলেছিলেন যে জম্মু ও কাশ্মীর অঞ্চল সম্পর্কিত মামলা এবং ইস্যুগুলি পরিচালনা করার জন্য ক্যাটের এখতিয়ার থাকবে। এর আগে, জম্মু ও কাশ্মীরে কেন্দ্রীয় পরিষেবাদি সম্পর্কিত ইস্যু নিয়েই সিএটির এখতিয়ার ছিল। জিতেন্দ্র সিং বলেছিলেন যে জম্মু ও কাশ্মীরে একটি ক্যাট বেঞ্চ প্রস্তুত করা হবে। সরকার শিগগিরই তার সদস্যদের নিয়োগ দিতে চলেছে। চণ্ডীগড় কেন্দ্রীয় প্রশাসনিক ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ জম্মু ও কাশ্মীরের বেঞ্চ নির্মাণ শেষ না হওয়া পর্যন্ত জম্মু ও কাশ্মীরে পরিষেবা সংক্রান্ত বিতর্ক এবং অন্যান্য বিষয়ে নিষ্পত্তি করবে। প্রধানমন্ত্রীর রাজ্য মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং বলেছেন যে জম্মু-কাশ্মীরে নিজেই ক্যাটের একটি এক্সক্লুসিভ বেঞ্চ গঠন করা হবে। জিতেন্দ্র সিং স্পষ্ট করে বলেছিলেন যে কেন্দ্রীয় প্রশাসন কেন্দ্রীয় প্রশাসনিক ট্রাইব্যুনালের সদস্যদের নিয়োগের বিষয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছে। সরকার ক্যাট চেয়ারম্যানের প্রেরণের প্রয়োজনীয়তার ভিত্তিতে শূন্য পদ পূরণেরও পদক্ষেপ নিচ্ছে। তিনি উল্লেখ করেছিলেন যে ক্যাট সদস্যের সংখ্যা 66 66 জন হওয়া উচিত। বর্তমানে সদস্য সংখ্যা ৩৯ জন। তিনি বলেন যে এই শূন্য পদ পূরণে সরকার গুরুত্ব সহকারে কাজ করছে। ক্যাট একটি চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান এবং অন্যান্য সদস্য নিয়ে গঠিত। তারা রাষ্ট্রপতি দ্বারা নিযুক্ত করা হয়। বিচার বিভাগীয় ও প্রশাসনিক অঞ্চল থেকে ক্যাট সদস্য নিয়োগ করা হয়। ক্যাট সদস্যরা পাঁচ বছর বা 65 বছর বয়স পর্যন্ত কাজ করেন, যাহা আগে হয়। ক্যাটের কোনও সদস্য, চেয়ারম্যান বা ভাইস চেয়ারম্যান পদত্যাগ করতে চাইলে তিনি ভারতের রাষ্ট্রপতির কাছে পদ শর্তাদির মধ্যে পদত্যাগ করতে পারবেন। সৌজন্যে: জাগরণ জোশ

jagaran Josh