ভারতের কোভিড সঙ্কট মোকাবেলায় মার্কিন প্রশাসনের নীরবতার বিষয়টি নিয়ে আমেরিকার অভ্যন্তরেই সমালোচনা শুরু হয়। এর প্রেক্ষিতেই দ্রুত সহায়তা পাঠাতে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বাইডেন প্রশাসন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে ভয়াবহ ক্ষতিগ্রস্ত ভারতের পাশে দাঁড়াচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। সম্প্রতি মার্কিন রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন মহামারী বিরোধী লড়াইয়ে ভারতকে সহায়তা পাঠানোর ঘোষণা দেন। এর একদিন পরই জানা গেলো, মার্কন যুক্তরাষ্ট্র ভারতকে ত্রাণ সহায়তা পাঠানোর জন্যে পূর্ণ প্রস্তুতি আরম্ভ করেছে।



সে প্রস্তুতির অংশ হিসেবেই গত ২৬ এপ্রিল, সোমবার, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী টনি ব্লিংকেন ভারতে মার্কিন সাহায্য পাঠানোর ব্যাপারে কথা বলতে এবং প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দিতে আমেরিকার শীর্ষ ব্যবসায়ী মহল এবং কর্পোরেট নেতাদের সঙ্গে এক ভার্চুয়াল বৈঠকে মিলিত হোন।



আমেরিকান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে বৈঠকটি সম্পর্কে জানা যায়। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র নেড প্রাইস জানিয়েছেন, ভারতে জরুরী সাহায্য পাঠাতে আমেরিকান বেসরকারী খাতের দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা কীভাবে কাজে লাগানো যায়, সে বিষয়ে আলোচনা করতেই সোমবার আমেরিকার ব্যবসায়ী মহল, চেম্বার অব কমার্স, ইউ-এস ইন্ডিয়া বিজনেস কাউন্সিল নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করেন ব্লিংকেন। উক্ত বৈঠকে প্রায় ৪০ টি শীর্ষ আমেরিকান সংস্থা অংশ নেয়।



ব্রিফিংকালে “গ্লোবাল কোভিড রেস্পন্স এবং স্বাস্থ্য সুরক্ষা" কার্যক্রমের সমন্বয়ক গেইল স্মিথ এবং ইন্দো-প্যাসিফিক বিষয়ক ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের সমন্বয়ক কূর্ট ক্যাম্পবেল ব্লিংকেনের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন।



বৈঠকে ব্লিংকেন মার্কিন শিল্পগোষ্ঠীর নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন “আমরা ভারতের জনগণের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ রেখে মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াই করতে চাই এবং এ কাজে সহায়তা করার জন্য এগিয়ে আসায় আপনাদের নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।”



বৈঠককালে, আমেরিকান চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি এবং প্রধান নির্বাহী সুজান ক্লার্ক বলেন, “ভারতের বর্তমান অবস্থা বৈশ্বিক মহামারীটির ভয়ঙ্কর রূপেরই প্রতিফলন। আমরাও এর মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। সময় এসেছে সরকারী-বেসরকারী যৌথ উদ্যোগে সবাই মিলে এই সঙ্কটকে মোকাবেলায় করার।”



উল্লেখ্য, বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম জনসংখ্যার দেশ ভারতে কোভিড সঙ্কট মোকাবেলায় আমেরিকা জুড়ে অনুদান সংগ্রহ এবং ভারতে পণ্য সরবরাহের ক্ষেত্রে ইউএস চেম্বার অব কমার্স অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে।



এদিকে, ভারত জুড়ে প্রতিদিনই সংক্রমণ এবং মৃত্যুর নতুন রেকর্ড গড়ছে মহামারী করোনা ভাইরাস। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে আমেরিকান প্রশাসন সহ বিশ্ব সম্প্রদায় ভারতের সাহায্যার্থে এগিয়ে এলেও তাতে ইতোমধ্যে অনেক দেরী হয়েছে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল। ভারতের সঙ্কট মোকাবেলায় মার্কিন প্রশাসনের নীরবতার বিষয়টি নিয়ে আমেরিকার অভ্যন্তরেই সমালোচনা শুরু হয়। এর প্রেক্ষিতেই দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের উদ্যোগে নিয়েছে বাইডেন প্রশাসন।