তীব্র করোনা সঙ্কটেও উভয় দেশের মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা অব্যহত ছিলো।

শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাক্ষের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন দেশটিতে দায়িত্ব পালনরত ভারতীয় হাইকমিশনার গোপাল বাগলে। বৈঠকে ভারত এবং শ্রীলঙ্কার মধ্যকার অর্থনৈতিক সহযোগিতা এবং বিনিয়োগ বৃদ্ধি সহ দু দেশের মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও মজবুত করতে নানাবিধ উপায় নিয়ে আলোচনা করেছেন তাঁরা। পরবর্তীতে এক টুইটের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করে কলম্বোয় অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাস।

টুইট লিঙ্ক: https://twitter.com/IndiainSL/status/1401827757466611715



উল্লেখ্য, ভারত এবং শ্রীলঙ্কা দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য এবং বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দুই অংশীদার। ২০১৫-১৭ সালের মধ্যে ভারত শ্রীলঙ্কায় প্রায় ৫.৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের পণ্য রপ্তানী করে, অন্যদিকে শ্রীলঙ্কাও উক্ত সময়ে ভারতে প্রায় ৭৪৩ মিলিয়ন ডলারের পণ্য রপ্তানী করে।



একবিংশ শতাব্দীর শুরুতে ২০০০ সালের মার্চ মাসে ভারত-শ্রীলঙ্কা মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির পর থেকেই দেশ দুটোর মধ্যকার বাণিজ্য দ্রুততার সাথে বৃদ্ধি পায়। এমনকি তীব্র করোনা সঙ্কটেও উভয় দেশের মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা অব্যহত ছিলো। তাছাড়া, উভয় দেশের জনগণের মধ্যকার ইতিহাস ও ঐতিহ্য, ভাতৃত্ব এবং সাংস্কৃতিক বন্ধনের এক সুবিশাল ইতিহাস রয়েছে।



গত মার্চ মাসেও ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী মোদী শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি গোটবায়া রাজাপাক্ষের সঙ্গে দীর্ঘ ফোনালাপ করেন। সেখানে করোনা সঙ্কটে সহযোগিতার পাশাপাশি অন্যান্য দ্বিপক্ষীয় বিষয় নিয়েও আলোচনা করেন তাঁরা। ভারতের ‘প্রতিবেশী প্রথম’ ভিত্তিক পররাষ্ট্রনীতিতে শ্রীলঙ্কার অবস্থান উপরের দিকে।



গত ফেব্রুয়ারী মাসেও, মহামারীর দ্বিতীয় তরঙ্গ আক্রমণের পূর্বে ভারতে পাঁচদিনের রাষ্ট্রীয় সফর করে গিয়েছেন লঙ্কান প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাক্ষে। তাছাড়া, রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব নেয়ার পর গত বছর নভেম্বর মাসে নিজের প্রথম রাষ্ট্রীয় সফরে ভারত এসেছিলেন রাষ্ট্রপতি গোটবায়া রাজাপাক্ষে।