পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতির প্রেক্ষিতে সাংবাদিকদের করা প্রশ্নের জবাবে কথা বলেন ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী

যেকোনো তথ্যের সত্যতা যাচাই ছাড়াই পাকিস্তান ভারতকে বদনাম করতে সচেষ্ট বলে মন্তব্য করেছেন ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী। ১০ জুন, বৃহস্পতিবার, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক নিয়মিত ব্রিফিং এ সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন তিনি।

এসময় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই মুখপাত্র বলেন, “সম্প্রতি ঝাড়খন্ডের বিকারোতে জব্দ করা উপাদান গুলো ইউরেনিয়াম কিংবা এ জাতীয় তেজস্ক্রিয় প্রকৃতির কিছু ছিলো না। ভারত সরকারের পরমাণু শক্তি অধিদপ্তর পদার্থ গুলোর নমুনা যথাযথভাবে মূল্যায়ন এবং পরীক্ষাগারের বিশ্লেষণ পূর্বক নিশ্চিত করেছে যে, সেগুলো ইউরেনিয়াম বা অন্য কোনো তেজস্ক্রিয় পদার্থ নয়।”

প্রসঙ্গত, ভারতে অবৈধ ইউরেনিয়াম ব্যবসার অভিযোগ এনে উপযুক্ত তদন্তের দাবি করেছিলো পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তাছাড়া, সম্প্রতি ভারতের ঝাড়খন্ড রাজ্যে বিপুল পরিমাণ তেজস্ক্রিয় ইউরেনিয়াম পাচারের অভিযোগে সাতজন ব্যক্তিকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে বলে দাবি করে কয়েকটি গণমাধ্যম।

বাগচী বলেন, “পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক বিবৃতির প্রেক্ষিতে সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর গুলো স্পষ্ট করে যে পাকিস্তান সত্যতা যাচাই ছাড়াই ভারতকে অপদস্থ করতে সচেষ্ট।”

পাশাপাশি, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই নিয়মিত মুখপাত্র সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন যে, এমন যেকোনো গুরুতর অপরাধের প্রেক্ষিতে ভারত একটি কঠোর আইন ভিত্তিক নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা বজায় রেখেছে, যা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কর্তৃক স্বীকৃত।