মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে দ্বিতীয়বারের মতো পারস্য উপসাগরীয় কোনো দেশের সফরে গেলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর।

কাতারের উপ-প্রধানমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী আল থানির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। গত মঙ্গলবার, ১৫ জুন, উক্ত বৈঠকে মিলিত হোন দুই নেতা।



বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক এবং আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক নানা ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেছেন দুই নেতা। এটি জয়শঙ্করের জন্য মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে দ্বিতীয়বারের মতো পারস্য উপসাগরীয় কোনো দেশের সফর।



পরবর্তীতে একটি টুইটের মাধ্যমে সাক্ষাতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিজেই। জানা গিয়েছে, করোনার বিরুদ্ধে ভারতের লড়াইয়ে কাতার প্রশাসন যে সংহতি প্রদর্শন এবং ভাতৃত্বের পরিচয় দিয়েছে, তাঁর উল্লেখ পূর্বক নিজের কৃতজ্ঞতা ব্যক্ত করেন জয়শঙ্কর। পাশাপাশি দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের উন্নয়ন এবং সহযোগিতার নানাবিধ বিষয়ে আলোচনা করেন তাঁরা।



আবার, কাতারের উপ-প্রধানমন্ত্রী এবং প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী খালিদ এম আল আতিয়ার সঙ্গেও একটি বৈঠকে মিলিত হোন জয়শঙ্কর এবং সেখানে পারস্পরিক সম্পর্ক জোরদারে নিজেদের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন তাঁরা।



ইতোপূর্বে, ০৯ জুন কুয়েতের উদ্দেশ্যে যাত্রা পথে কাতারের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মুহাম্মদ বিন আল মেসেনেদের সঙ্গে সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎ করেছিলেন জয়শঙ্কর। তাছাড়া, বর্তমানে দোহায় থাকাকালে আফগানিস্তানে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ প্রতিনিধি জালমে খলিলজাদের সঙ্গেও মতবিনিময় করেছেন জয়শঙ্কর। সেখানে মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহার পরবর্তী পরিস্থিতি এবং আফগানিস্তানের আঞ্চলিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন তাঁরা।



একই সঙ্গে, দোহার বিমানবন্দরে জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আইমান হাফসাদি এবং ফিলিস্তিনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রিয়াদ আল মালিকির সঙ্গেও যৌথ বৈঠক করেছেন জয়শঙ্কর। নিজের টুইটার একাউন্ট থেকে পরপর কয়েকটি টুইটের মাধ্যমে এসব তথ্য জানান জয়শঙ্কর নিজেই।