অনলাইন ভিত্তিক অপরাধের তদন্তের সুবিধার্থে ভারত একটি ফরেনসিক ল্যাব এবং ফরেনসিক ম্যানুয়াল তৈরির সুপারিশ করেছে

ব্রিকসে প্রথমবারের মতো আয়োজিত হলো ডিজিটাল ফরেনসিক বিষয়ক কর্মশালা। ০৩ আগস্ট, মঙ্গলবার, এতে বক্তব্য রাখতে গিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব সিপিভি-ওআইএ সঞ্জয় ভট্টাচার্য্য বলেন, সন্ত্রাসবাদের উদ্দেশ্যে ইন্টারনেটের ব্যবহার রুখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ডিজিটাল ফরেনসিক।



তিনি বলেন, “সরকার কঠোর পরিশ্রম করে চলেছে। কিন্তু সত্য এই যে, দক্ষতা ও প্রযুক্তিগত জ্ঞানের বেশিরভাগই বেসরকারি খাতের উপর নির্ভর করে। পাবলিক-প্রাইভেট এই পার্টনারশিপের জন্য সকল সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে দৃঢ় বন্ধন গড়তে হবে।”



এসময়, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসমূহের মধ্যে দক্ষ জনশক্তি তৈরী এবং প্রযুক্তিগত ভাবে তাদেরকে দীর্ঘমেয়াদে সাবলীল করা উচিৎ বলে মন্তব্য করেন তিনি। ডিজিটাল এনক্রিপশন এবং বেনামী প্রযুক্তি ব্যবহার, নেটওয়ার্ক এবং ম্যালওয়্যার এর মতো বিষয়গুলো ফরেনসিক বিশেষজ্ঞগণ সবচেয়ে বেশি মোকাবেলা করছেন বলে অবহিত করেন তিনি।



ডিজিটাল অপরাধে সন্ত্রাসবাদী এবং অন্যান্য লঙ্ঘনকারীদের দ্বারা উদ্ভূত বিপদ মোকাবেলায় এবং দ্রুত পরিবর্তনশীল প্রযুক্তির পরিবেশের সাথে সামঞ্জস্য করতে সমন্বিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন বলে সবাইকে সচেতন করেন সঞ্জয়।



সবশেষে, ডিজিটাল প্রমাণ এনক্রিপশন এবং প্রমাণ সংগ্রহের জন্য ব্লক চেইন প্রযুক্তির ব্যবহার সহ অনলাইন অপরাধের তদন্তের সুবিধার্থে একটি ফরেনসিক ল্যাব এবং একটি ফরেনসিক ম্যানুয়াল তৈরির সুপারিশ করেন তিনি।