মালাবার-২১ মহড়ায় চারদিন ব্যাপী যৌথ অনুশীলন করবে ভারত, অস্ট্রেলিয়া, জাপান এবং যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী।

মালাবার-২১ মহড়ায় যোগ দিতে যুক্তরাষ্ট্রের দ্বীপ অঞ্চল গুয়ামে পৌছেছে ভারতীয় নৌবাহিনীর জাহাজ শিবালিক এবং কাদমাত। মহড়াটিতে ভারত ছাড়াও অংশ নিবে যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া এবং জাপানের নৌবাহিনী। আগামী ২৬ আগস্ট থেকে ২৯ আগস্ট অবধি সময়কালে উক্ত মহড়াটি অনুষ্ঠিত হবে।

ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে নিজেদের সাম্প্রতিক কর্মকান্ডের অংশ হিসেবে এবং সংশ্লিষ্ট অঞ্চলে কোয়াড জোট ভূক্ত দেশ গুলোর মধ্যকার সম্পর্ক বৃদ্ধির প্রত্যাশায় মহড়াটিতে যোগ দিতে চলেছে ভারতীয় নৌবাহিনী।

উক্ত মহড়াটিতে নৌবাহিনীর ডিস্ট্রোয়ার্স, ফ্রিগেটস, করভেটস, সাবমেরিন, হেলিকপ্টার এবং লং রেঞ্জ মেরিটাইম পেট্রোল এয়ারক্রাফটের উচ্চ-টেম্পো সহ প্রভৃতি যন্ত্রাংশের সমন্বয়ে তৈরী আয়োজন দেখা যাবে।

এসময়, জটিল সারফেস, সাব-সারফেস এবং এয়ার অপারেশন সহ লাইভ ওয়েপন ফায়ারিং ড্রিলস, অ্যান্টি-সারফেস, এন্টি-এয়ার এবং অ্যান্টি-সাবমেরিন ওয়ারফেয়ার ড্রিলস, জয়েন্ট ম্যানুভারস এবং টেকটিক্যাল ব্যায়াম এর মতো অনুশীলন আয়োজন করা হবে।

মহড়াটি আয়োজনের ফলে, বাহিনী গুলোর মধ্যকার বোঝাপড়া সহ আন্তঃযোগাযোগ বৃদ্ধি, নিরাপদভাবে পারস্পরিক তথ্য আদান-প্রদান, অবৈধ ফিশিং বন্ধ, মাদক পাচার রোধ, চোরাচালান বন্ধ, অবৈধ অভিবাসন বন্ধ, সামুদ্রিক সন্ত্রাসবাদ রোধ, জলদস্যুদের নির্মূল সহ ইত্যাদি নানা প্রকার বেআইনী কার্যকলাপ দমন সহজ হয়ে যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

প্রসঙ্গত, ১৯৯২ সালে ভারত এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দ্বিপক্ষীয় নৌ মহড়া আয়োজনের মাধ্যমে মালাবার মহড়ার সূচনা করে। এরপর ২০১৫ সালে এই জোটে যোগ দেয় জাপান এবং অস্ট্রেলিয়া। মূলত, মালাবার নৌ মহড়ার মাধ্যমে ৪ দেশের নৌবাহিনীর মধ্যে সহযোগিতা ও সমন্বয় বাড়ানো হয়।

এবারের মালাবার-২১ মহড়ায় যোগ দিতে চলা আইএনএস শিবালিকের নেতৃত্বে রয়েছেন ক্যাপ্টেন কপিল মেহতা এবং আইএনএস কাদমাত এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন কমান্ডার আর কে মহারানা।

জাহাজ দুটো ভারতের দেশীয়ভাবে ডিজাইন করা এবং নির্মিত মাল্টি রোল গাইডেড মিসাইল স্টিলথ ফ্রিগেট এবং অ্যান্টি-সাবমেরিন করভেট। উভয় জাহাজই ভারতের ইস্টার্ন নেভাল কমান্ডের অধীনে বিশাখাপত্তনমে অবস্থিত ভারতীয় নৌবাহিনীর পূর্ব নৌবহরের অংশ। জাহাজ দুটো বহুমুখী অস্ত্র এবং সেন্সর দিয়ে সজ্জিত, হেলিকপ্টার বহন করতে পারে।