দিল্লী আশঙ্কা করছে, পাকিস্তানের আইএসআই এবং কুখ্যাত হাক্কানি গোষ্ঠীর সঙ্গে তালেবানের মিত্রতা ভবিষ্যতে আফগান ভূখণ্ডকে সন্ত্রাসীদের আশ্রয়স্থলে পরিণত করতে পারে।

আফগানিস্তানের মাটি ব্যবহার করে কোনোভাবেই যেনো ভারত বিরোধী কার্যকলাপ সংঘটিত না হতে পারে, তালেবানের প্রতি পুনরায় সে আহবান জানিয়েছে ভারত। ০২ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক নিয়মিত ব্রিফিং এর অংশ হিসেবে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন দপ্তরের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী। সেখানেই এই হুঁশিয়ারি বার্তা উচ্চারণ করেন তিনি।



বাগচী বলেন, “আমাদের মূল চিন্তার বিষয় এই যে, আফগানিস্তানের মাটি যেনো ভারত বিরোধী কিংবা যেকোনো ধরণের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের জন্য ব্যবহৃত না হয়।”



আলোচনাকালে, আফগানিস্তানের সম্ভাব্য সরকার গঠন প্রক্রিয়া সম্পর্কে ভারত সরকারের অভিমত জানতে চাইলে বাগচী বলেন, “সেখানে কী ধরণের সরকার গঠিত হবে, সে বিষয়ে এখনও কোনো নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া বা গতিপ্রকৃতি সম্পর্কে আমরা অবগত নই। তবে আমরা পরিস্থিতির উপর পর্যবেক্ষণ করছি। কিন্তু এ মুহূর্তে আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করার মতো কোনো আপডেট তথ্য আমার কাছে নেই।”



এসময়, সম্প্রতি কাতারের দোহায় তালেবানের রাজনৈতিক কার্যালয়ের প্রধান আব্বাস স্টানেকাজির সঙ্গে ভারতীয় কূটনীতিকের বৈঠক, আফগানিস্তানে আটকে পড়া ভারতীয় নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং তাঁদের দ্রুত প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে গৃহীত পদক্ষেপ সমূহের ব্যাপারে আলোচনা করেন বাগচী।



উল্লেখ্য, দিল্লী আশঙ্কা করছে, পাকিস্তানের আইএসআই এবং কুখ্যাত হাক্কানি গোষ্ঠীর সঙ্গে তালেবানের মিত্রতা ভবিষ্যতে আফগান ভূখণ্ডকে সন্ত্রাসীদের আশ্রয়স্থলে পরিণত করতে পারে।