অক্সিজেন প্ল্যান্ট গুলো তৈরী করেছে ভারতের প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা (ডিআরডিও)।

করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে পাশে থাকতে বাংলাদেশকে দুটো ৯৬০ এলপিএম উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন অক্সিজেন প্ল্যান্ট পাঠিয়েছে ভারত। ০২ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার, দু’টি মোবাইল অক্সিজেন প্ল্যান্ট নিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরে পৌঁছেছে ভারতীয় নৌবাহিনীর অফশোর টহল জাহাজ আইএনএস সাবিত্রী।



গত সোমবার ভারতের বিশাখাপত্তম থেকে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে জাহাজটি। অক্সিজেন প্ল্যান্ট গুলো তৈরী করেছে ভারতের প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা (ডিআরডিও) । বিষয়টি নিশ্চিত করে একটি বিবৃতি দিয়েছে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাস।



জানা গিয়েছে, একটি প্ল্যান্ট ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থাপন করা হবে এবং অন্যটি বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে হস্তান্তর করা হয়েছে বিএনএস পতেঙ্গায় স্থাপন করার জন্য।



স্বয়ংসম্পূর্ণ এবং অত্যাধুনিক এই প্ল্যান্টগুলি অত্যন্ত সাশ্রয়ী উপায়ে তাৎক্ষণিক মেডিকেল অক্সিজেন তৈরি করতে সক্ষম। হাসপাতালে সরাসরি স্থাপনের পাশাপাশি এগুলো অক্সিজেন সিলিন্ডার রিফিল করার জন্যও ব্যবহার উপযোগী। প্ল্যান্ট গুলো চিকিৎসাকাজে ব্যবহারের জন্য প্রেসার সুইং অ্যাবসর্পশন (পিএসএ) নীতিসহ জিওলাইট (মলিকুলার সীভ) প্রযুক্তি ব্যবহার করে মানসম্মত মেডিকেল অক্সিজেন উৎপন্ন করে।



উল্লেখ্য, আইএনএস সাবিত্রী একটি অফশোর টহল জাহাজ যা ভারতের বিশাল এক্সক্লুসিভ ইকোনমিক জোনে টহল দেয়। জাহাজটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন কমান্ডার এন রবি সিং। বাংলাদেশ সফরকালে জাহাজের ক্রু মেম্বারগণ তাদের বাংলাদেশী সমমর্যাপন্নদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন এবং যাত্রার সময় ভারতীয় নৌবাহিনী এবং বাংলাদেশ নৌবাহিনী একত্রে ৩ সেপ্টেম্বর বঙ্গোপসাগরে প্যাসেজ মহড়ায় অংশ নেবে।



প্রসঙ্গত, আইএনএস সাবিত্রীর এই বাংলাদেশ সফর ২০২১ সালে ভারতীয় নৌবাহিনী জাহাজের দ্বিতীয়বারের মতো চট্টগ্রাম বন্দর পরিদর্শন। উল্লেখ্য, ভারত ও বাংলাদেশ যৌথভাবে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করছে। চলতি বছরের মার্চে ভারতীয় নৌবাহিনীর দু’টি জাহাজ প্রথমবারের মতো মংলা সফরে এসেছিল যৌথভাবে মুজিববর্ষ উদযাপনের অংশ হিসেবে।