‘সিমবেক্স’ হচ্ছে বিদেশী যেকোনো রাষ্ট্রের নৌবাহিনীর সঙ্গে ভারতীয় নৌবাহিনীর অংশ নেয়া দ্বিপাক্ষিক মহড়ার মধ্যে দীর্ঘতম নিরবচ্ছিন্ন দ্বিপাক্ষিক সামুদ্রিক মহড়া।

দক্ষিণ চীন সাগরে সফলভাবে শেষ হলো ভারত এবং সিঙ্গাপুরের যৌথ নৌ মহড়া ‘সিমবেক্স’। ০৪ সেপ্টেম্বর, শনিবার, ২০২১, তিনদিন ব্যাপী আয়োজিত মহড়াটি শেষ হয়। এটি সিমবেক্স মহড়ার ২৮ তম সংস্করণ।



মহড়ায় সরাসরি অস্ত্র পরিচালনা, নৌ যুদ্ধ পরিচালনা, সাবমেরিন পরিচালনা, এয়ার ডিফেন্স অপারেশন, অ্যান্টি এয়ার এবং অ্যান্টি সার্ফেস পর্যায়ে গুলি চালনা সহ বেশ কিছু চ্যালেঞ্জিং রণকৌশল সম্পর্কে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। ০২ সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া মহড়াটির আয়োজন করে সিঙ্গাপুরের নৌবাহিনী।



শনিবার, ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারি করা এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, মহড়াটির ফলে দু দেশের মধ্যকার আন্তঃসম্পর্ক বৃদ্ধি এবং কূটনৈতিক সম্পর্ক আরও গভীর রূপ লাভ করবে। পাশাপাশি উভয় নৌবাহিনীর মধ্যকার পারস্পরিক বিশ্বাস এবং ঘনিষ্ঠতা বৃদ্ধিতে কাজ করবে মহড়াটি।



উল্লেখ্য, ‘সিমবেক্স’ হচ্ছে বিদেশী যেকোনো রাষ্ট্রের নৌবাহিনীর সঙ্গে ভারতীয় নৌবাহিনীর অংশ নেয়া দ্বিপাক্ষিক মহড়ার মধ্যে দীর্ঘতম নিরবচ্ছিন্ন দ্বিপাক্ষিক সামুদ্রিক মহড়া। ১৯৯৪ সালে মহড়াটি শুরু হয়েছিলো। এরপর থেকে প্রতিবছরই নানান চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও তা অব্যহত রেখেছে দু দেশের নৌ বাহিনী।



এবছরের সিমবেক্স-২০২১ মহড়াতে করোনা মহামারী সংক্রান্ত বিধিনিষেধের কারণে সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুশীলন পরিচালনা করা হয়। মহড়াটিতে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করে গাইডেড মিসাইল ডেস্ট্রয়ার জাহাজ আইএনএস রণবিজয়, অ্যান্টি সাবমেরিন ওয়্যারফেয়ার করভেট আইএনএস কিল্টান, গাইডেড মিসাইল করভেট আইএনএস কোরা এবং একটি পি৮আই লং রেঞ্জ মেরিটাইম পেট্রোল এয়ারক্রাফট।



অন্যদিকে সিঙ্গাপুরের প্রতিনিধিত্ব করে ফর্মিডেবল ক্লাস ফ্রিগেট আরএসএস স্টেডফাস্ট, একটি এস-৭০ বি নেভাল হেলিকপ্টার, একটি ভিক্টরি ক্লাস মিসাইল করভেট, আরএসএস ভিগর, একটি আর্চার ক্লাস সাবমেরিন এবং একটি ফকার -৫০ মেরিটাইম পেট্রোল এয়ারক্রাফট। মহড়ায় এয়ার ডিফেন্স ড্রিলসের সময় প্রজাতন্ত্রের সিঙ্গাপুর এয়ার ফোর্সের (আরএসএএফ) চারটি এফ-১৬ যুদ্ধবিমানও মহড়ায় অংশ নিয়েছিলো।