বাণিজ্য চুক্তির ভিত্তি স্থাপনের জন্য যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করেছে যুক্তরাজ্য-ভারত।

আগাম ফসল এবং ব্যাপক মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে আলোচনা শুরু করেছে ভারত ও যুক্তরাজ্য। গত ১৩ সেপ্টেম্বর, সোমবার, দু দেশের মধ্যকার বাণিজ্য সম্ভাবনা ও সম্ভাব্য চুক্তিসমূহের বিষয়ে আলোচনা করতে বৈঠক করেছেন ভারতের কেন্দ্রীয় বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রী পীযূষ গয়াল এবং যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সচিব লিজ ট্রাস।



পরবর্তীতে এক টুইট বার্তায় আলোচনার বিষয়ে জানান গয়াল নিজেই। সেখানে উভয়ের মধ্যকার আলোচনাকে অত্যন্ত ফলপ্রসূ এবং উৎপাদনশীল বলে আখ্যায়িত করেন তিনি। অপরদিকে, ট্রাস জানিয়েছেন, বাণিজ্য চুক্তির ভিত্তি স্থাপনের জন্য যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করেছে যুক্তরাজ্য-ভারত।



উক্ত ওয়ার্কিং গ্রুপের কার্য পরিধি হবে, উভয় দেশে এক বিলিয়নেরও বেশি ভোক্তার নিকট পৌঁছানো; যৌথ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি শিল্পকে শক্তিশালী করা; এবং, উভয় রাষ্ট্রে চাকরির পরিমাণ বাড়ানো।



ইউকে ডিপার্টমেন্ট অফ ইন্টারন্যাশনাল ট্রেডের জারি করা একটি রিডআউট অনুসারে, যুক্তরাজ্য এবং ভারত সরকারের মধ্যে এ ধরণের আলোচনা উভয় পক্ষকে ট্যারিফ, স্ট্যান্ডার্ড, আইপি এবং ডেটা রেগুলেশন সহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সকল ক্ষেত্রে সম্ভাব্য অবস্থান নির্ধারণ করতে সাহায্য করবে।



উল্লেখ্য, চলতি বছরের গত মে মাসে ভারত এবং যুক্তরাষ্ট্র, উভয় প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে পারস্পরিক অংশীদারিত্ব বৃদ্ধিকল্পে রোডম্যাপ-২০৩০ ঘোষণা করা হয়। সেখানে চলতি দশকে বাণিজ্য ও অর্থনীতি, প্রতিরক্ষা এবং সুরক্ষা, জলবায়ু, স্বাস্থ্য এবং অভিবাসন ও প্রত্যাবাসন নিয়ে ব্যাপক সম্পর্কোন্নয়নের কথা রয়েছে দু দেশের। এই চুক্তিটির অন্যতম গুরুত্বপুর্ণ অঙ্গীকার হচ্ছে, চলতি দশকে দু দেশের মধ্যকার বাণিজ্য দ্বিগুণ করা।