সামরিক এই মহড়াটির লক্ষ্য মূলত দু দেশের মধ্যকার পারস্পরিক স্বার্থ রক্ষা এবং দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বৃদ্ধি

আগামীকাল ভারতের উত্তরাখন্ডে অবস্থিত পিথোরাগড়ে শুরু হচ্ছে ভারত ও নেপালের যৌথ সামরিক মহড়া ‘সূর্য-কিরণ’ এর ১৫ তম সংস্করণ। সোমবার শুরু হতে যাওয়া সামরিক এই মহড়াটির লক্ষ্য মূলত দু দেশের মধ্যকার পারস্পরিক স্বার্থ রক্ষা এবং দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বৃদ্ধি।



ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মহড়াটিতে অংশ নেবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর একটি পদাতিক ব্যাটালিয়ন এবং নেপালি সেনাবাহিনীর সমকক্ষ একটি ইউনিট। জঙ্গীবাদ বিরোধী অভিযান পরিচালনার সময় করণীয় সহ নানা ধরণের অনুশীলন এবারের মহড়ায় প্রদর্শিত হবে।



তাছাড়া, মহড়াটির অংশ হিসেবে উভয় রাষ্ট্রের সেনাবাহিনী পরস্পরকে নিজেদের অস্ত্র, সামরিক সরঞ্জামাদি এবং বিভিন্ন কৌশল সম্পর্কে তথ্য আদান-প্রদান করবে। পাশাপাশি দুর্যোগ ও ত্রাণ পরিচালনা ও মানবিক সহায়তা প্রদান সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ও এবারের মহড়ায় স্থান পাবে বলে জানা গিয়েছে।



মহড়াটির সর্বশেষ সংস্করণ নেপালে অনুষ্ঠিত হয়েছিলো। এবারের মহড়াটি চলবে দুদিন ব্যাপী। মহড়াটির ফলে দু দেশের ঐতিহাসিক ও ঐতিহ্যগত সম্পর্ক আরও বেশি এগিয়ে যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছে ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।



এর আগে গোটা মহামারী সময় জুড়ে নেপালী সেনাবাহিনীকে ভ্যাকসিন প্রদান করে ভারতীয় সেনাবাহিনী। পাশাপাশি বিভিন্ন ধরণের স্বাস্থ্যগত সেবা দেয়া হয় তাঁদের। পাশাপাশি নেপালী সৈন্যদের আধুনিক প্রশিক্ষনের জন্যেও ভারতে পাঠানো হয়।



তাছাড়া, উভয় রাষ্ট্রের মধ্যে সামরিকভাবে বেশ সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। একে অন্যকে সম্মান সূচক জেনারেল হিসেবেও সম্মানিত করে থাকে দেশ দুটো। পাশাপাশি নেপালের গোর্খা অঞ্চল থেকে ব্যাপক পরিমাণ সৈন্য নিজ বাহিনীতে প্রতি বছর নিয়োগ দেয় ভারতীয় বাহিনী।