উজবেকিস্তান সফরে দ্বিপক্ষীয়, আঞ্চলিক এবং বহুপাক্ষিক নানা ইস্যুতে সম্পর্ক জোরদারে আলোচনা করছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মীনাক্ষী লেখি।

উজবেকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুল আজিজ কামিলভের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ভারতীয় পররাষ্ট্র ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী মীনাক্ষী লেখি। বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের নানা দিক নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়েও বিস্তর কথা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।



সম্প্রতি চারদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে উজবেকিস্তান যান লেখি। গত ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর অবধি দেশটিতে অবস্থান করেন তিনি। সেখানেই দেশটির সঙ্গে ভারতের কূটনৈতিক সম্পর্কের সার্বিক দিক পর্যালোচনায় বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে যোগ দেন তিনি। সোমবার, এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।



পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, উজবেকিস্তানে উন্নয়ন প্রকল্পে ইতোমধ্যে প্রায় ০১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সমপরিমাণ অর্থ বরাদ্দ করেছে ভারত। সেটি দ্রুত বাস্তবায়নের উপর জোর দেন লেখি। তাছাড়া, দ্বিপাক্ষিক বিনিয়োগ চুক্তির চলমান আলোচনা দ্রুত শেষ করার বিষয়েও একমত হয়েছেন দুই নেতা।



সফরকালে উজবেকিস্তানের সংস্কৃতি মন্ত্রী ওজোদবেক নজরবকভের সাথেও দেখা করেছেন লেখি। দু দেশের মধ্যকার ঐতিহাসিক সম্পর্কের সাংস্কৃতিক আদান-প্রদানের উপর জোর আলোচনা করেন তাঁরা। আগামী সপ্তাহ নাগাদ ভারত থেকে প্রায় ৫০ জন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দলকে তাসখন্দ চলচ্চিত্র উৎসবে পাঠানোর বিষয়েও সম্মত হোন লেখি। তাছাড়া, ২০২১-২৫ অবধি উভয় রাষ্ট্রের মধ্যে সাংস্কৃতিক আচার-অনুষ্ঠান বিনিময়ের বিষয়ে একটি চুক্তি সই করেন লেখি।



এছাড়াও, তাঁর এই সফরকালে বিখ্যাত তাসখন্দ স্টেট ইউনিভার্সিটি অব ল -তে 'ভারতের গণতান্ত্রিক ঐতিহ্যে’র উপর বক্তব্য দেন লেখি। পাশাপাশি তাসখন্দে অবস্থানরত ভারতীয় সম্প্রদায়ের লোকজনের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন তিনি। সেখানে বুখারা স্টেট ইউনিভার্সিটি এবং সমরকন্দ স্টেট মেডিকেল ইনস্টিটিউটে ভারতীয় ছাত্রদের সঙ্গেও এক অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি।



বস্তুত, উজবেকিস্তানের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ কূটনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে ভারতের। বহুপাক্ষিক বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে প্রায়শই একে অন্যকে সমর্থন দিয়ে থাকে তাঁরা। দেশটিতে ভারতীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সফর দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে নতুন মাত্রা আনবে বলে ধারণা করছে বোদ্ধামহল।