প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মহড়াটির লক্ষ্য মূলত দু দেশের মধ্যকার পারস্পরিক স্বার্থ রক্ষা এবং দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বৃদ্ধি।

উত্তরাখণ্ডের চৌবাতিয়ায় শুরু হয়েছে ভারত ও যুক্তরাজ্যের যৌথ সামরিক মহড়া ‘অজেয় ওয়ারিয়র’ -এর ষষ্ঠ সংস্করণ। ০৭ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার, ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এক বিবৃতিতে তথ্যটি নিশ্চিত করা হয়েছে। মহড়াটি শেষ হবে আগামী ২০ অক্টোবর।

বিবৃতিতে বলা হয়, “মহড়াটিতে অংশ নিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনীর একটি পদাতিক কোম্পানি এবং যুক্তরাজ্যের সেনাবাহিনীর একটি পদাতিক কোম্পানী। বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র পরিচালনা, লজিস্টিক সাপোর্ট ও সামরিক অভিযান পরিচালনার বিষয়ে অনুশীলন করা হবে মহড়া চলাকালীন। পাশাপাশি উভয় প্রতিনিধি দল নিজেদের পূর্বে চালিত অভিযান সমূহের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিবে একে অন্যের সঙ্গে।”

মহড়াটির লক্ষ্য মূলত দু দেশের মধ্যকার পারস্পরিক স্বার্থ রক্ষা এবং দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বৃদ্ধি পাবে বলে জানিয়েছে ভারতীয় প্রতিরক্ষা দপ্তর। উল্লেখ্য, উভয় রাষ্ট্রের মধ্যকার সামরিক, বাণিজ্যিক ও কূটনৈতিক সহযোগিতা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। আয়োজিত মহড়াটির ফলে উভয় রাষ্ট্রের মধ্যকার পারস্পরিক আস্থা ও বন্ধুত্বের বন্ধন আরও দৃঢ় হবে বলে আশা করছে বোদ্ধামহল।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের মে মাসে উভয় দেশের প্রধানমন্ত্রীর ভার্চুয়াল বৈঠকে পারস্পরিক অংশীদারিত্ব বৃদ্ধিকল্পে রোডম্যাপ-২০৩০ ঘোষণা করা হয়। সেখানে দু দেশের মধ্যে চলতি দশকে বাণিজ্য ও অর্থনীতি, প্রতিরক্ষা এবং সুরক্ষা, জলবায়ু, স্বাস্থ্য এবং অভিবাসন ও প্রত্যাবাসন নিয়ে ব্যাপক সম্পর্কোন্নয়নের কথা বলা হয়েছে। এই চুক্তিটির অন্যতম গুরুত্বপুর্ণ অঙ্গীকার হচ্ছে, চলতি দশকে দু দেশের মধ্যকার বাণিজ্য দ্বিগুণ করা।