ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মতে, এশিয়ার সামগ্রিক পরিস্থিতি গোটা বিশ্বের উপরই প্রভাব ফেলতে সক্ষম।

সন্ত্রাসবাদের উদ্দেশ্যে আফগান ভূখন্ডের ব্যবহার রোধ নিশ্চিত করার পাশাপাশি সেখানে সকলের অংশগ্রহণের ভিত্তিতে একটি অন্তর্বর্তী সরকার গঠন প্রচেষ্টাকে নিজেদের অন্যতম অগ্রাধিকার হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

১২ অক্টোবর, ২০২১, মঙ্গলবার, কাজাখস্তানের রাজধানী নূর সুলতানে কনফারেন্স অব ইন্টারেকশন এন্ড কনফিডেন্স বিল্ডিং মেজারস ইন এশিয়া (সিআইসিএ) -এর ষষ্ঠ মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে বক্তব্য প্রদানকালে এসব কথা বলেন তিনি। বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কাজাখস্তানের রাষ্ট্রপতি কাসিম-জোমার্ট তোকায়েভ।

জয়শঙ্কর বলেন, “এশিয়ার সামগ্রিক পরিস্থিতি গোটা বিশ্বের উপরই প্রভাব ফেলতে সক্ষম। দূর্যোগ, মহামারী, স্বাস্থ্য, অর্থনীতি সহ সম্ভব সবকিছুতেই এশিয়া গোটা বিশ্বের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িয়ে। আফগানিস্তানের সাম্প্রতিক ঘটনাবলী গোটা অঞ্চল জুড়ে এক উদ্বেগের সৃষ্টি করেছে। তাই এর থেকে উত্তরণের পথ সবাইকে এক হয়েই খুঁজতে হবে।”

এসময়, সিআইসিএ -কে এসব আঞ্চলিক সমস্যার সমাধানে ইতিবাচক ভূমিকা রাখার আহবান জানান তিনি। সন্ত্রাসবাদ দমন, অস্ত্র পাচার রোধ, মাদক ব্যবসা প্রতিহত করা সহ সকল অপরাধ মোকাবেলায় ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান মোদী মন্ত্রীসভার গুরুত্বপূর্ণ এই মন্ত্রী।

আলোচনার এক পর্যায়ে, সিআইসিএ -এর স্বপ্নদ্রষ্টা কাজাখস্তানের প্রথম রাষ্ট্রপতি এলবাসি নুরসুলতান নজরবায়েভেরকে স্মরণ করেন জয়শঙ্কর। তিনি বলেন, “এশিয়াতে শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় সিআইসিএ দৃঢ় ভূমিকা রাখছে।”