বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক দ্রুততম সময়ের মধ্যে ভারতীয় ভ্যাকসিন গুলোর স্বীকৃতি দেয়া দরকার বলে অভিমত দেন মোদী।

জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে বর্তমানে ইতালির রোমে ব্যস্ত সময় পার করছেন নরেন্দ্র মোদী। সেখানেই বক্তৃতাকালে গোটা বিশ্বের সকল মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চায়নের উপর জোর দেন তিনি। গত ৩০ অক্টোবর, শনিবার, নিজ বক্তব্য প্রদানকালে পৃথিবীর সকল মানুষের জন্য 'এক বিশ্ব ও এক স্বাস্থ্য' -নিশ্চিত করার বার্তা দেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী।

সে লক্ষ্য পূরণের নিমিত্তে করোনা মহামারী-সহ বিশ্বের যে কোনো স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সঙ্কট মোকাবিলার ক্ষেত্রে সকল ধরণের বিভেদ ভুলে একজোট হওয়ার ডাক দেন মোদী। একই সঙ্গে ভবিষ্যতের যেকোনো মহামারীর বিরুদ্ধে একত্রিতভাবে লড়াইয়ের জন্য একটি প্রক্রিয়া গঠনের উপরও জোর দেন তিনি।

এসময়, আগামী বছরের মধ্যে ভারত ৫ বিলিয়ন করোনার টিকা তৈরী করতে প্রস্তুত বলেও জানান তিনি। জি-২০ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, “২০২২ সালের শেষের মধ্যে করোনাভাইরাস টিকার ৫০০ কোটি ডোজ তৈরি করতে প্রস্তুত আছে ভারত। যা সারা বিশ্বেও মিলবে।”

তাছাড়া, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক দ্রুততম সময়ের মধ্যে ভারতীয় ভ্যাকসিন গুলোর স্বীকৃতি দেয়া দরকার বলেও অভিমত দেন মোদী। পাশাপাশি, অন্য রাষ্ট্রসমূহও যেনো ভারতীয় টিকার মান্যতা দেয়, তাঁর অনুরোধ করেন তিনি। মোদী বলেন, “আর্থিক বিকাশের জন্য আন্তর্জাতিক ব্যবসা-বাণিজ্য আরও বাড়ানো দরকার। সে কারণে বিভিন্ন দেশের তৈরি করোনার টিকার মান্যতার ব্যাপারে সুনিশ্চিত করতে হবে।”

জি২০ সম্মেলনের প্রথম সেশনে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ভারতের অবদান তুলে ধরেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিশ্বের ১৫০ টি দেশে চিকিৎসার সরঞ্জাম পাঠানো সহ অন্যান্য অবদানের কথাও উল্লেখ করেন তিনি।

এসবের পাশাপাশি, জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে যে সব চ্যালেঞ্জ আছে, তা নিয়েও তাঁরা কথা বলেছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী।