গত মাসে অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও বন্ধন দৃঢ় করতে একটি চার-দফা প্যাকেজ চূড়ান্ত করে ভারত এবং শ্রীলঙ্কা।

ভেঙ্গে পড়া অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে এবং জিডিপি বৃদ্ধির লক্ষ্যে শ্রীলঙ্কার পাশে দাঁড়িয়েছে ভারত। দ্বীপ রাষ্ট্রটিকে প্রায় ৯০০ মিলিয়ন ডলার সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে নয়াদিল্লী। এর মাঝে এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়ন নিষ্পত্তির স্থগিতকরণ এর মাধ্যমে ৫০০ মিলিয়ন এবং বাকি ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার নগদ আদান প্রদান করা হবে।

১৩ জানুয়ারী, বৃহস্পতিবার, সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ শ্রীলঙ্কার গভর্নর নিভার্ড ক্যাবরালের সাথে দেখা করেছেন দেশটিতে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার গোপাল বাগলে এবং দ্বীপ দেশটির প্রতি সর্বাবস্থায় ভারতের সমর্থন প্রকাশ করেছেন। পরবর্তীতে কলম্বোয় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনের পক্ষ থেকে এক টুইট বার্তায় বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

এর আগে চলতি সপ্তাহের শুরুতেই শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ক্যাবরাল বলেছিলেন, ভারত থেকে এক বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ নিয়ে আলোচনা করছে লঙ্কান কর্তৃপক্ষ।

প্রসঙ্গত, করোনা মহামারী দেশটিকে ভীষণভাবে বিধ্বস্ত করেছে। ভঙ্গুর হয়ে পড়েছে শ্রীলঙ্কার অর্থনীতি। মুদ্রার মূল্যস্ফীতি এই পরিস্থিতিকে আরও জটিল করে তুলেছে। গতবছর অর্থনৈতিক জরুরী অবস্থাও ঘোষণা করেছে লঙ্কান প্রশাসন।

উল্লেখ্য, গত মাসে অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও বন্ধন দৃঢ় করতে একটি চার-দফা প্যাকেজ চূড়ান্ত করে ভারত এবং শ্রীলঙ্কা। এর মাঝে ভারতের তরফে শ্রীলঙ্কাকে দেয়া লাইন অব ক্রেডিটের সম্প্রসারণ এবং মুদ্রা বিনিময় ব্যবস্থার প্রস্তাব অন্তর্ভুক্ত রয়েছে বলে জানা গিয়েছিলো।

গত ০১ এবং ০২ ডিসেম্বর সময়কালে লঙ্কান অর্থমন্ত্রী বাসিল রাজাপাক্ষের ভারত সফরের সময় চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হয়েছিলো। পরবর্তীতে গত বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর, ভারতে নিযুক্ত লঙ্কান হাইকমিশনের এক বিবৃতিতে বিষয়টি জানানো হয়।

আর্থিক সহযোগিতার চার দফা প্যাকেজটি যথাক্রমে,

প্রথমত, জরুরী ভিত্তিতে খাদ্য ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা প্যাকেজ, যা ভারত থেকে শ্রীলঙ্কায় খাদ্য, ওষুধ এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় আইটেম রপ্তানির ক্ষেত্রে ক্রেডিট লাইনের সম্প্রসারণকে নিশ্চিত করবে।

দ্বিতীয়ত, একটি এনার্জি সিকিউরিটি প্যাকেজ, যাতে ভারত থেকে জ্বালানি রপ্তানির জন্য একটি ক্রেডিট লাইন এবং ত্রিনকোমালি ট্যাঙ্ক ফার্মের প্রাথমিক আধুনিকীকরণ অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

তৃতীয়ত, শ্রীলঙ্কাকে বর্তমান অর্থপ্রদানের ভারসাম্য সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানে সাহায্য করার জন্য একটি মুদ্রা অদলবদলের প্রস্তাব।

চতুর্থত, শ্রীলঙ্কায় বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভারতীয় বিনিয়োগের সুবিধা দেওয়া, যা রাষ্ট্রীয়ভাবে দেশটির বৃদ্ধিতে অবদান রাখবে এবং কর্মসংস্থান প্রসারিত করবে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক