উপমহাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের অবিসংবাদিত নেতা নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর ১২৫ তম জন্মজয়ন্তীতে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

উপমহাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের অবিসংবাদিত নেতা নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর হলোগ্রাম মূর্তি ঐতিহাসিক ইন্ডিয়া গেটে স্থাপন করা হয়েছে। গত ২৩ জানুয়ারি, রবিবার, নেতাজির ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে তাঁর প্রতি ভারতের কৃতজ্ঞতার প্রতীক হিসেবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি মূর্তিটি উন্মোচন করেছেন।

রবিবার মূর্তি উন্মোচনের পর মোদী বলেন, “ভারত মাতার বীর সন্তান নেতাজিকে জানাই লক্ষ-কোটি প্রণাম। এটি একটি ঐতিহাসিক মুহূর্ত। এই মূর্তি স্বাধীনতার নায়কের প্রতি দেশের শ্রদ্ধাঞ্জলি।”

মোদী বলেন, “এটা দুর্ভাগ্যজনক যে স্বাধীনতার পর আমাদের দেশের সংস্কৃতি এবং অধিকারের পাশাপাশি অনেক মহান ব্যক্তিত্বের কৃতিত্বও মুখে ফেলা হয়েছে। ‌ভারত আবার নিজের সত্ত্বা এবং অনুপ্রেরণা জাগিয়ে তুলবে। ‌স্বাধীনতার পর যাঁদের স্মৃতি মুছে ফেলা হয়েছিল, সেই হিরোদের কৃতিত্ব এখন স্মরণ করা হচ্ছে। সে কারণেই এই আজাদি কা অমৃত মহোৎসব।”

নেতাজিকে দেশভক্তির প্রতীক উল্লেখ করে তিনি বললেন, “‌নেতাজি আমাদের স্বাধীনতা ছিনিয়ে নিতে শিখিয়েছেন। স্বাধীন, অসাম্প্রদায়িক ভারতের বিশ্বাস জুগিয়েছিলেন।” এই অনুষ্ঠানে ভারতের যেকোনো দূর্যোগ ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর কথাও তুলে এনেছেন মোদী। এই বাহিনীকে আরও শক্তিশালী ও উন্নত করা হয়েছে বলেও জানালেন তিনি।

নেতাজির মূর্তিটি ইন্ডিয়া গেটে যেখানে স্থাপন করা হয়েছে, সেখানে এক সময়ে রাজা পঞ্চম জর্জের মূর্তি ছিল। একটি গ্রানাইট মূর্তি এই জায়গায় স্থাপনের জন্য নির্দিষ্ট করা হয়েছে। সেটি সম্পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত হলোগ্রাম মূর্তিটি সেখানে থাকবে।

সরকারি সূত্রে খবর, ১৯৬৮ সালে ইন্ডিয়া গেট থেকে রাজা পঞ্চম জর্জের মূর্তিটি সরিয়ে নেওয়া হয়। এবার সেই জায়গাতেই বসছে ২৮ ফুট উঁচু ও ৬ ফুট দৈর্ঘ্যের নেতাজি মূর্তি।

হলোগ্রাম মূতির্টি উন্মোচনের পরে প্রধানমন্ত্রী মোদী ২০১৯, ২০২০, ২০২১ ও ২০২২ সালের জন্য সুভাষ চন্দ্র বসু আপদা প্রবন্ধন পুরস্কার প্রদান করেন। নেতাজির ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও সংস্কৃতিমন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডি উপস্থিত ছিলেন।

মূর্তি উন্মোচন করে বিশিষ্ট স্বাধীনতা সংগ্রামী নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর জন্মবার্ষিকী পালন অন্তর্ভূক্ত করার মধ্য দিয়ে ২৪ জানুয়ারির পরিবর্তে ২৩ জানুয়ারি থেকে ভারত তাদের প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপন শুরু করেছে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক