কাউন্টার টেরোরিজম কমিটির এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টরেটের টুইটে বলা হয়েছে, ব্রিফিংয়ে তথ্যের আইনি অ্যাক্সেস ও এবছরের কাজের খসড়া প্রস্তুত অন্তর্ভূক্ত ছিলো।

দশ বছর বিরতির পর পুনরায় জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের কাউন্টার টেররিজম কমিটির সভাপতিত্ব করলো ভারত। গত ২৪ জানুয়ারী, সোমবার, এই দায়িত্ব পালন করলো বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্র। পরবর্তীতে জাতিসংঘে নিযুক্ত ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি টিএস তিরুমুর্তির এক টুইটবার্তায় বিষয়টি জানা যায়।

টুইটে তিনি লিখেছেন, “২০২২ সালের শুরুতেই কাউন্টার টেরোরিজম কমিটির সভাপতিত্ব করতে পেরে আমরা খুশি। ভারত বরাবরই জাতিসংঘের কাউন্টার টেরোরিজম কমিটির এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টরেটকে বেশ গুরুত্ব দিয়ে থাকে। চলতি বছরের কাজের খসড়া সূচি চূড়ান্ত করতে সদস্য দেশগুলোকে তাদের গঠনমূলক ইনপুটের জন্য ধন্যবাদ জানাই।”

উল্লেখ্য, গতবছর নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্যপদ প্রাপ্তির পর থেকে এখনও অবধি তিনটি গুরুত্বপূর্ণ কমিটির সভাপতিত্ব করছে ভারত। সেগুলো যথাক্রমে, তালেবান নিষেধাজ্ঞা কমিটি, কাউন্টার টেরোরিজম কমিটি এবং লিবিয়ান নিষেধাজ্ঞা কমিটি।

ভারতের সভাপতিত্ব করার বিষয়টি নিয়ে টুইট করা হয়েছে কাউন্টার টেরোরিজম কমিটির এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টরেটের অফিশিয়াল টুইটার হ্যান্ডলে থেকেও। সেখানে বলা হয়েছে, “কাউন্টার টেরোরিজম কমিটির প্রথম পূর্ণাঙ্গ সভায় সভাপতিত্ব করেছেন রাষ্ট্রদূত টিএস তিরুমূর্তি। ব্রিফিংয়ে তথ্যের আইনি অ্যাক্সেস এবং ২০২২ সালের কাজের খসড়া প্রস্তুত প্রোগ্রাম অন্তর্ভূক্ত ছিলো।”

এদিন, নিরাপত্তা পরিষদে লিবিয়ার নিষেধাজ্ঞা কমিটির একটি প্রতিবেদনও পেশ করেছে ভারত। সেটিও টুইট বার্তায় জানিয়েছেন তিরুমূর্তি।

প্রসঙ্গত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ঐতিহাসিক ৯/১১ হামলার পর ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০০১ সালে নিরাপত্তা পরিষদে ১৩৭৩ নং রেজুলেশন পাশ করার মাধ্যমে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট ও কমিটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিলো। মূলত, বিশ্বের দেশগুলোকে সন্ত্রাসী কার্যকলাপের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য তাদের আইনি ও প্রাতিষ্ঠানিক ক্ষমতা উন্নত করার কাজটি করে থাকে এই কমিটি।

সন্ত্রাসবাদে অর্থায়নকে অপরাধীকরণের পদক্ষেপ নেওয়া, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত ব্যক্তিদের সাথে যুক্ত যেকোনো তহবিল বাজেয়াপ্ত করা, সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে সব ধরনের আর্থিক সহায়তা বন্ধ করা, সন্ত্রাসীদের নিরাপদ আশ্রয় বানচাল করে দেয়া, সন্ত্রাসীদের ভরণপোষণ বা সমর্থনের বিধান নিষিদ্ধ করা এবং অন্যান্য সরকারের সাথে তথ্য ভাগ করে নেয়ার বিষয় গুলো অত্যন্ত দক্ষতার সাথে পরিচালনা করে আসছে এই কমিটি। এর আগে সর্বশেষ ২০১২ সালে নিরাপত্তা পরিষদের সন্ত্রাসবিরোধী কমিটির সভাপতিত্ব করেছিলো ভারত। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক