গতবছর ২১ মার্চ তারিখে ঘোষণা করা হয়েছিলো কোয়াড ভ্যাকসিন পার্টনারশিপ কর্মসূচির।

ভারত, অস্ট্রেলিয়া, জাপান এবং অস্ট্রেলিয়ার জোট কোয়াডের ভ্যাকসিন পার্টনারশিপের অধীনে করোনা টিকার প্রথম চালান পেলো কম্বোডিয়া। আগামী ২৪ মে, ২০২২, টোকিওতে অনুষ্ঠিতব্য কোয়াড শীর্ষ নেতৃত্বের বৈঠকের ঠিক পূর্বে সূচনা হলো জোটের মানবিক কর্মকান্ডের।

গত ১২ এপ্রিল, মঙ্গলবার, কম্বোডিয়ার নমপেনের শান্তি প্রাসাদে প্রধানমন্ত্রী হুন সেনের কাছে ভ্যাকসিনেশন প্রকল্পের আওতায় ৩ লক্ষ ২৫ হাজার ডোজ মেড-ইন-ইন্ডিয়া কোভিশিল্ড টিকা পৌছে দেন সেদেশে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত দেবযানী খোবরাগড়ে। এসময়, তার সাথে উপস্থিত ছিলেন কম্বোডিয়াস্থ অস্ট্রেলিয়া, জাপান এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিগণ।

পরবর্তীতে এক বিবৃতিতে তথ্যটি জানায় ভারতীয় পররাষ্ট্র দপ্তর। সেখানে বলা হয়, ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের মিত্রদের জন্য ৫ লাখ টিকা উপহার দেয়ার যে ঘোষণা প্রধানমন্ত্রী মোদী দিয়েছিলেন, এর অংশ হিসেবেই টিকাগুলো কম্বোডিয়াকে পৌছে দেয়া হয়েছে।

এর আগে গতবছর ২১ মার্চ তারিখে ঘোষণা করা হয়েছিলো কোয়াড ভ্যাকসিন পার্টনারশিপ কর্মসূচির। কোয়াড জোটের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বিশ্বব্যাপী প্রায় ১.২ বিলিয়ন ডোজ টিকা প্রদান করা হবে বলেও সেসময় জানানো হয়েছিলো।

উল্লেখ্য, এখনও অবধি কম্বোডিয়াকে কোয়াড এর পক্ষে এবং কোভ্যাক্সের মাধ্যমে প্রায় ০৫ মিলিয়ন কোভিড ভ্যাকসিন ডোজ সরবরাহ করা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া এবং জাপান স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের সুরক্ষার জন্য সরঞ্জামসহ কোল্ড স্টোরেজ সরঞ্জাম, ফ্রিজার এবং তাপমাত্রা মনিটর সরবরাহ করেছে, যখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নজরদারি এবং যোগাযোগের সন্ধান, মামলার তদন্ত, স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের প্রশিক্ষণ এবং ডেটা ব্যবস্থাপনায় সহায়তা দিয়েছে।

এদিকে, কম্বোডিয়ান সরকার ভারতের মাধ্যমে কোয়াড থেকে প্রাপ্ত ভ্যাকসিন এবং কম্বোডিয়াকে সম্মিলিত সহায়তার জন্য দেশটির ক্রমাগত প্রশংসা করেছে। এছাড়াও, কোয়াড দেশগুলো কম্বোডিয়াকে মহামারী মোকাবেলায় সম্ভাব্য সকল সহায়তা প্রসারিত করার আকাঙ্ক্ষার বিষয়ে আশ্বস্ত করেছে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক