ভারত এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কৌশলগত স্বার্থের একটি ক্রমবর্ধমান অভিন্নতা রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন রাজনাথ সিং।

আমেরিকান প্রতিরক্ষা সংস্থাগুলোকে ভারতে এসে বিনিয়োগ করতে এবং মোদী সরকারের নেয়া ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ প্রোগ্রামকে সমর্থন করার আহ্বান জানিয়েছেন ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। ২১ এপ্রিল, বৃহস্পতিবার, ভারতে আমেরিকান চেম্বার অফ কমার্সের এক অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল মাধ্যমে ভাষণ দিতে গিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

নিজ বক্তৃতায় রাজনাথ বলেন, “আমি মার্কিন কোম্পানিগুলোকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন সরকারের নেওয়া নীতিগত উদ্যোগের সুবিধা নিতে এবং 'মেক ইন ইন্ডিয়া’ উদ্যোগের সহযোগী হতে আহবান জানাই। আমি ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ এবং এরোস্পেস ও ওয়ার্ল্ড প্রোগ্রামের জন্য আমেরিকান সংস্থাগুলোর সঙ্গে কথা বলেছি। পাশাপাশি তাদেরকে এই প্রোগ্রামগুলোতে অংশীদারিত্বের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছি।”

তিনি আরও যোগ করেন, “আমি জোর দিয়েছি যে ভারত সহ-উন্নয়নমূলক প্রযোজনাতে মনোনিবেশ করবে এবং সমস্ত বিনিয়োগকারীদের এর জন্য ভারতে আসা উচিত। তাদের এখানে স্বাগত। আমরা এদেশে সমস্ত কিছু তৈরি করতে চাই। তাই তারা ভারতে এলে আমরাও ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’র বিকাশ করতে পারবো।”

এসময়, ভারত-মার্কিন কৌশলগত সম্পর্ক নিয়েও কথা বলেন তিনি। রাজনাথ বলেন, “ভারত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কৌশলগত অংশীদারিত্বকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়। এই সম্পর্কের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ এই প্রতিরক্ষা অংশীদারিত্ব। ভারত মহাসাগরের অংশীজন দেশ ও কেন্দ্র হিসাবে এবং বিশ্বের বৃহত্তম দুই গণতন্ত্র হিসেবে বিস্তৃত ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে ভারত-মার্কিন সম্পর্কের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। আমরা একটি স্থিতিস্থাপক এবং নিয়ম-ভিত্তিক আন্তর্জাতিক আদেশ চাই, যা সমস্ত দেশের সার্বভৌমত্ব এবং আঞ্চলিক অখণ্ডতা রক্ষা করে।”

আলোচনাকালে, ভারত-মার্কিন অর্থনৈতিক সম্পৃক্ততাকে ২১ শতকের সংজ্ঞায়িত ব্যবসায়িক সম্পর্কগুলোর একটি হিসেবে বর্ণনা করেন মোদী মন্ত্রীসভার গুরুত্বপূর্ণ এই সদস্য। পাশাপাশি, গত বছর দু দেশের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ১১৩ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে বলেও জানান তিনি।

রাজনাথ বলেন, “আমাদের ক্রমবর্ধমান বাণিজ্যের প্রেক্ষাপটে, ভারত-মার্কিন বাণিজ্য নীতি ফোরাম দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য সম্প্রসারণ, বাজারে প্রবেশের বাধা দূর করতে এবং ব্যবসার সহজতা উন্নত করার জন্য আলোচনা ক্রমবর্ধমান গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।”

এদিকে, বহুল প্রতীক্ষিত ৪র্থ ভারত-মার্কিন ২+২ মন্ত্রীপর্যায়ের সংলাপে যোগ দিতে গত ১০ এপ্রিল যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন রাজনাথ সিং এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। গত ১১ এপ্রিল, সোমবার, মার্কিন মুল্লুকের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। সংলাপে মার্কিন প্রতিনিধিত্ব করেন বাইডেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রী লয়েড অস্টিন।

এসময়, বৈশ্বিক জ্বালানী, প্রতিরক্ষা, উন্নয়ন এবং নিরাপত্তার ক্ষেত্রে ভারত ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাপক অংশীদারিত্বের গুরুত্ব পুনর্ব্যক্ত করেন উপস্থিত চার মন্ত্রী। ইউক্রেনের ক্রমবর্ধমান মানবিক সংকট মোকাবেলায় সম্ভাব্য করণীয় নিয়েও বিস্তর আলোচনা করেছেন তারা। বৈঠকের পর এক যৌথ প্রেস বিবৃতিতে সংলাপের আদ্যোপান্ত তুলে ধরা হয়। সেখানে, ব্যাপক কৌশলগত অংশীদারিত্ব আরও মজবুতের উপর জোর দেয়া হয়েছে।

একটি মুক্ত, উন্মুক্ত, এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক ইন্দো-প্যাসিফিকের জন্য কোয়াড সম্পর্কের স্থিতিশীলতার উপরও জোর দেন তারা। এজন্য, কোয়াড দেশগুলোর মধ্যকার পারস্পরিক বাণিজ্য, ভ্যাকসিনেশন প্রোগ্রাম এবং উন্নয়ন বরাদ্দ আরও বাড়ানোর বিষয়ে বিশদ মতবিনিময় করেন চার মন্ত্রী। ভারত-মার্কিন এফটিএ নিয়েও আলোচনা হয়েছে বৈঠকে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক