দুই নেতার সাক্ষাতের ফলে বাণিজ্য, প্রযুক্তি এবং নিরাপত্তার চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার ক্ষেত্রে সম্পর্ক আরও এগোবে

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাথে সাক্ষাৎ করেছেন ইউরোপীয় কমিশনের প্রধান উরসুলা ভন ডার লেইন। ২৫ এপ্রিল, সোমবার, নয়াদিল্লীতে দুজনের মধ্যকার বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। এসময়, ভারত-ইইউ বাণিজ্য ও প্রযুক্তি কাউন্সিল চালু করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেন তারা।

বৈঠকের পর ইইউ-ভারত যৌথ প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, “ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডার লেইনের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বৈঠকের সময় বাণিজ্য ও প্রযুক্তি কাউন্সিল চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই কৌশলগত সমন্বয় প্রক্রিয়া উভয় অংশীদারকে বাণিজ্য, বিশ্বস্ত প্রযুক্তি এবং নিরাপত্তার সংযোগে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার সুযোগ এনে দিবে। এইভাবে ইইউ এবং ভারতের মধ্যে এই ক্ষেত্রগুলোতে সহযোগিতা আরও গভীর হবে।”

মোদীর সাথে বৈঠকের পর লেইন বলেন, “ইউরোপীয় কমিশনের একটি মাত্র ট্রেড অ্যান্ড টেকনোলজি কাউন্সিল রয়েছে এবং সেটি হচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তাই সময় এসেছে যে ভারতের সাথে দ্বিতীয় বাণিজ্য ও প্রযুক্তি কাউন্সিল প্রতিষ্ঠা করার। এই পদক্ষেপ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের কাছে ভারত টেকনোলজির পাওয়ার হাউস। ভারতের মধ্যে অত্যন্ত সম্ভাবনা রয়েছে প্রযুক্তিগত দিকে নিজেদের বিকাশ ঘটানো।”

এর আগে সপ্তম রাইসিনা ডায়লগে উদ্বোধনী দিনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন উরসুলা ভন ডার লেইন। তাঁর বক্তব্যের প্রেক্ষিতে এবং ব্যস্ত সময়সূচি থেকে ভারতে এসে বিশেষভাবে সময় প্রদান করায় তাঁকে ভারতবাসীর পক্ষ হতে কৃতজ্ঞতা জানান প্রধানমন্ত্রী মোদী।

এদিন বৈঠকের বিষয়টি জানিয়ে টুইটারে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী লেখেন, “আজ দিল্লিতে ইইউ প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডের লেইনের সঙ্গে বৈঠকে বসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ইন্ডিয়া-ইইউ স্ট্র্যাটেজিক পার্টনারশিপের অগ্রগতি খতিয়ে দেখেন দুই প্রধান। এছাড়া, বাণিজ্য, পরিবেশ, ডিজিটাল টেকনোলজি ও জনসম্পর্ক আরও মজবুত করে তোলার বিষয়ে সহমত প্রকাশ করেন দু’জনে।”

তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, ভারতের সঙ্গে ‘ট্রেড অ্যান্ড টেকনোলজি কাউন্সিল’ গড়ে তোলার বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন উরসুলা। প্রধানমন্ত্রী মোদীর এই সিদ্ধান্তে রীতিমতো উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন তিনি। এর ফলে, দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও প্রযুক্তি হস্তান্তরের পথ আরও সুগম হবে। বলে রাখা ভাল, এই মুহূর্তে শুধুমাত্র আমেরিকার সঙ্গেই এহেন কাউন্সিল রয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের।

এদিন প্রধানমন্ত্রী মোদীর সঙ্গে বৈঠকে ভারতকে ‘টেকনোলজিক্যাল পাওয়ার হাউস’ বলে উল্লেখ করেন উরসুলা ভন ডের লিয়েন। তারপরই অত্যন্ত লক্ষণীয়ভাবে তিনি বলেন, “এ বছর ভারত-ইইউ সম্পর্কের ৬০তম বর্ষপূর্তি। আজকের দিনে এই সম্পর্কের গুরুত্ব আরও বেড়েছে। আমরা বর্ধিষ্ণু গণতন্ত্র এবং বৃহৎ অর্থনীতি। কিন্তু আজ আমরা একাধিক চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছি।”

এর আগে ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সাথেও বৈঠক করেন ভন ডার লেইন। এসময়, ইউক্রেন সহ সমসাময়িক অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক বিভিন্ন ইস্যুতে মতবিনিময় করেন তারা। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক